“হোপেসের ডাকে শাহবাগে ডাক্তার পদবী ফিরত ও হোমিওপ্যাথিক কাউন্সিল গঠনের  জন্য বিক্ষোভ সমাবেশ”


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৩০, ২০২২, ৯:২৯ অপরাহ্ন / ৬২৯
“হোপেসের ডাকে শাহবাগে ডাক্তার পদবী ফিরত ও হোমিওপ্যাথিক কাউন্সিল গঠনের  জন্য বিক্ষোভ সমাবেশ”
“হোপেসের ডাকে শাহবাগে ডাক্তার পদবী ফিরত ও হোমিওপ্যাথিক কাউন্সিল গঠনের  জন্য বিক্ষোভ সমাবেশ”
রউফুল আলম, ব্যুরো চীফ, রংপুরঃ
ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা ভবনে হোমিও পেশাজীবি সমিতি (হোপেস) এর ডাকে ৪১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সভাপতিত্ব করেন জননেতা ছবি বিশ্বাস (সাবেক এমপি) চেয়ারম্যান হোপেস উপদেষ্টার নেতৃতে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ জাহাঈীর আলম (রেজিষ্টার) বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড। ও স্বাগত বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জননেতা ডাঃমোঃআব্দুর রাজ্জাক তালুকদার (মেডিকেল অফিসার) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হোপেস বাংলাদেশ ও প্যানেল চেয়ারম্যান বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড।প্রধান অতিথি ছিলেন সমাজ কল্যান প্রতি মন্ত্রি জনাব আশরাফ আলি খান খশরু। উদ্ভোদক হিসেবে অধ্যাপক ডঃ মুহাম্মদ সামাদ (প্রো ভাইস চ্যান্সেলর) ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয় এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদ  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,ডাঃদিলিপ কুমার রায় (চেয়ারম্যান) বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড,অধ্যাপক ডঃ নিয়ামুল হক ভুইয়া সাধারন সম্পাদক শিক্ষক সমিতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,অধ্যাপক অসীম কুমার সরকার সংস্কৃত বিভাগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,জনাব মোহাম্মদ হোসেন ভাইস প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশন,ডাঃ অক্ষয় কুমার দাস (এমডি) অধ্যাপক ফিজিওলজি বিভাগ নিতাই বর্মন চক্রবর্তি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল কলকাতা, অধ্যাক্ষ ডাঃরোকেয়া খাতুন  হোপেস হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। সন্ঞ্চালক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ লোকমান ও ডাঃ ইউসুফ আলি, সহ সকল বোর্ড সদস্যগন উপস্থিত ছিলেন এবং আরও উপস্থিত ছিলেন ডাঃমোঃআমান উল্লাহ জিকু মহাসচিব হোপেস বাংলাদেশ,ডাঃমোঃহেলাল উদ্দিন,ডাঃমোঃআব্দুল আলিম বাঙালি,সিরাজ উল্লাহ,ডাঃ সৈয়দা আফরোজা রুবনা ও ডাঃরেজাউল করীম। আলোচনা শেষে জননেতা ডাঃমোঃআব্দুর রাজ্জাক তালুকদার(প্যানেল চেয়ারম্যান) ও অজয় কুমার দাস এর নেতৃত্বে ২ হাজারেরও বেশি ডাক্তারের সমাগমে বিক্ষোভ মিছিলটি ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের শারিরীক শিক্ষা কেন্দ্র হতে বের হয়ে টিএসসি দিয়ে শহরের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে শাহবাগ চত্বর আসে এতে জননেতা ডাঃআব্দুর রাজ্জাক তালুকদার (প্যানেল চেয়ারম্যান বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক বোর্ড) বলেন বিএমডিসির কালো আইন আমরা মানিনা এ আইন শুধু বিএমডিসির জন্য প্রযোজ্য আমরা ডাক্তার পদবী ফিরত চাই এবং আমাদের ১৯ দফা দাবী নিয়ে হোমিওপ্যাথির জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আমার নিজ উদ্দোগে ও চট্টগ্রামের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা, জাতীয় ও জননেতা বিশিষ্ট পার্লামেন্টারীয়ান বর্ষীয়ান নেতা জনাব মঈন খান বাদল এর সহযোগীতায় এবং ডাঃ লোকমানের সার্বিক ত্যাগ ও সহযোগিতায় জাতীর জনকের নামে বঙ্গবন্ধু হোমিওপ্যাথি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করে হাজার হাজার মানুষের সেবা দিয়েছেন বলে জনাব ডাঃ আব্দুর রাজ্জাক তালুকদার (প্যানেল চেয়ারম্যান) তার নিজ এলাকা ময়মনসিংহ নেত্রকোনা শ্যামগন্জে হোমিও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করে প্রতিদিন শতশত রোগিকে সেবা দিচ্ছেন নাম মাত্র মুল্যে যা বিরল দৃষ্টান্ত,,  দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গড়ে তুলেছেন হোমিও দাতব্য চিকিৎসালয়।
এবং ডাঃআমান উল্লাহ জিকু বলেন দুর্নীতির কালো আইন চাইনা আমরা গ্রাম গন্জে শহর বন্দরে ৪ বছর  ৬ মাস লেখা পড়া করে সরকারী রেজিষ্টেশন নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি প্রায় ৫০ বছর ধরে। এখনও আমরা ২০ টাকা মুল্যে রোগী দেখে থাকি।ডাঃ হেলাল কক্সবাজার বলেন এমবিবিএস ভাইয়েরা ৪ বছর ৬ মাস লেখা পড়া করেন আর আমরা ডিএইচএমএস রাও ৪ বছর ৬ মাস লেখা পড়া করে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি তাহলে আমরা কোথায় কম। আমরাতো ২০ টাকায় রোগী দেখি আর এমবিবিএস ভাইয়েরা ৬০০ থেকে ১০০০ টাকা ভিজিট নিয়ে রোগী দেখেন। লেখা পড়া সমান বলে কেন আমরা ডাক্তার পদবী লিখতে পারবনা আমরা লিখেছি লিখব,সিরাজ উল্লাহ বলেন আমরা হাতুরে ডাক্তার নই ৪ বছর ৬ মাস লেখা পড়া করেছি এবং সরকারী রেজিষ্টেশন নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে পাথর,টিউমার আচিল সহ সকল ধরনের রোগের চিকিৎসা করে আসছি এবং রোগী সুস্থ হচ্ছে। ডাঃমোঃআব্দুল আলিম বাঙালি বলেন প্রায় ২০০ বছরের বেশি সময় ধরে হ্যানিম্যানের আবিস্কৃত হোমিও চিকিৎসার মাধ্যমে গ্রাম অন্ঞ্চল ও শহরে চিকিৎসা দিয়ে আসছিল এবং রোগীও সুফল পেয়েছে একক ঔষধ ব্যবহার করে। বিশেষ করে করোনা মোকাবেলায় আমাদের হোমিও চিকিৎসক গুলো রাত দিন প্রায় সেবা দিয়েছে। আমরা ৪ বছর ৬ মাস লেখা পড়া করে স্বাস্থমন্ত্রনালয় থেকে রেজিষ্টেশন নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি প্রায় ৪০ হাজারেও বেশি এবং তা ২০ টাকার বিনিময়ে কই আমরাতো ৬০০ টাকা ভিজিট নেই না। আমরা বিএমডিসির কালো আইন চাইনা এ আইন তাদের জন্য , এ আইন হোমিও চিকিৎসকদের জন্য নয়,কারন আমাদের ডিপার্টমেন্ট আলাদা হওয়ায় আমাদের বোর্ড আলাদা তাহলে কেন আমরা তাদের আইন মানব ? এব্যাপারে প্রধান অতিথি সমাজ কল্যান প্রতিমন্ত্রি জনাব আশরাফ আলি খান খশরু সাংবাদিকদের  বলেন হোমিও ডাক্তার গন হল গরীবের বন্ধু, কাজেই যারা চিকিৎসা সেবার সাথে আছে তারা ডাক্তার পদবী লিখবে। অপর দিকে হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডাঃ দিলিপ রায়ের কাছে সাংবাদিক প্রশ্নের উওরে  বলেন বীর একবারেই মরে  না হয় আমি আগেই মরব হোমিও প্যাথির জন্য ?  তবে ডাক্তার পদবী আগে ছিল তা বর্তমানে থাকবে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। আমাদের হোমিওপ্যাথিক আইন খসরা অনুমোদন হয়েছে, ২০২১ আইনটি সংসদে  পাস হওয়ার অপেক্ষায় আছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।
পরি শেষে ডাঃআব্দুর রাজ্জাক তালুকদার (প্যানেল চেয়ারম্যান)সহ ডাঃমো আব্দুল আলিম বাঙালি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
মোঃ রউফুল আলম
০১৭১৭৭৫৭৭১০
তারিখঃ ২৯/১১/২২