শেরপুরের নকলায় টাকার বিনিময়ে টিসিবি কার্ড বিতরণের অভিযোগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে 


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৯, ২০২৪, ৭:৩৯ অপরাহ্ন / ৭৭
শেরপুরের নকলায় টাকার বিনিময়ে টিসিবি কার্ড বিতরণের অভিযোগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে 

জাহাঙ্গীর হোসেন, শেরপুর প্রতিনিধি :
শেরপুরের নকলায় পাঠাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অতিদরিদ্রদের জন্য টিসিবি কার্ড বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুছ সালাম সরকার সু্বিধাভোগীদের মাঝে কার্ড বিতরণকালে প্রতি কার্ডের বিপরীতে ৩০ টাকা করে নিয়েছেন। 

গত ২৮ জানুয়ারি রবিবার ওই ইউনিয়নের ১ হাজার ২০০ টিসিবি কার্ড বিতরণকালে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে এ অভিযোগ উঠে। আরও অভিযোগ উঠেছে ১ হাজার ২০০টি কার্ড বিতরণ করে ইউপি চেয়ারম্যান অতিদরিদ্রদের কাছ থেকে অনৈতিকভাবে ৩০ টাকা হিসেবে মোট ৩৬ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

কার্ড নিতে আসা কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়া গ্রামের এমদাদুল (৬০), কৈয়াকুড়ি নামাপাড়া গ্রামের উম্মে কুলছুম (৪০), কৈয়াকুড়ি গ্রামের কুলসুম (২০), বারারচর গ্রামের নুর হোসেন (৫৮) ও আজিজুল হক (৭০), পাঁচকাহনীয়া গ্রামের আব্দুল খালেক (৭৫), বহরদী গ্রামের সুরুজ্জামান (৭৩) জানান পাঠাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে টিসিবি কার্ড নিতে এসে তাঁরা নগদ ৩০ টাকা করে জমা দেওয়ার পর তাঁদের কার্ড দেওয়া হয়েছে। 

ইউপি সদস্য পাঠাকাটা গ্রামের আদম শফিক জানান টিসিবি কার্ড বিতরণে টাকা নেওয়ার বিষয়ে চেয়ারম্যান কোন মিটিং করেননি। এটি সম্পূর্ণ তাঁর ব্যাক্তিগত সিদ্ধান্ত। 

এব্যাপারে কথা বলার জন্য পাঠাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুছ সালাম সরকারকে বারবার ফোন করা হলেও ফোন বন্ধ থাকায় তাঁর সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাদিয়া উম্মুল বানিন জানান টিসিবি কার্ড বিতরণে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কোন সুযোগ নেই। তারপরেও পাঠাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কার্ড বিতরণ করতে গিয়ে দরিদ্রদের কাছ থেকে কেন টাকা নিয়েছেন তা খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।