শেরপুরের নকলায় অটোরিকসা ও মালবাহী ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ৫


প্রকাশের সময় : মে ৮, ২০২৪, ৮:৫৩ অপরাহ্ন / ৪৪
শেরপুরের নকলায় অটোরিকসা ও মালবাহী ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ৫

জাহাঙ্গীর হোসেন, শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরের নকলায় যাত্রীবাহী অটোরিকসা ও মালবাহী ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোরিকসায় থাকা ৩ জন নিহত এবং ৫ জন আহত হয়েছে।৭ মে মঙলবার রাতে নকলা পৌরসভার গড়েরগাঁও কান্দাপাড়া এলাকায় বাইপাস সড়কে এ ঘটনা ঘটে। চালক ট্রাক নিয়ে পালিয়ে গেছে। নিহত ব্যাক্তিরা হলেন শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নন্নী এলাকার  জবেদা খাতুন (৭৫) ও আবেদা খাতুন (৪৫) এবং ঝিনাইগাতী উপজেলার মালিঝিকান্দা এলাকার রাজা মিয়া (৫৫)। আহত ব্যাক্তিরা হলেন নিহত রাজা মিয়ার স্ত্রী সুলতানা বেগম (৪৫) ও আবেদা খাতুনের ছেলে আরাফাত রহমান (৬), নালিতাবাড়ীর পোড়াগাঁও এলাকার আব্দুল হাই (৫৫) ও ছামিদ আলী (৫০) এবং ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বাঁশাটি এলাকার অটোরিকসাচালক আজাহার আলী ওরফে আক্কাছ আলী (৪৮)। আহতদেরকে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে অটোরিকসা চালক আজাহারের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে। অটোরিকসা চালক ছাড়া আহত ও নিহত সকলেই পরস্পর আত্মীয়। তাঁরা মঙলবার বিকেলে আত্মীয়ের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে বাড়ি থেকে ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার শাহপুর এলাকায় গিয়েছিলেন। রাতে অটোরিকসা করে বাড়ি ফেরার পথে এ দূর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায় ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার শাহপুর এলাকার আব্দুল খালেক মঙলবার সকালে মারা যান। মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে খালেকের ছেলে জাকির মিয়ার শ্বশুর নালিতাবাড়ীর পোড়াগাঁও এলাকার আব্দুল হাই (৬০) জনাযায় অংশ নিতে আত্মীয়স্বজনসহ বিকেলে খালেকের বাড়ি আসেন। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে জানাযা শেষে রাতে একটি অটোরিকসা করে সবাই বাড়ি ফিরছিলেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে নকলা পৌরসভার গড়েরগাঁও কান্দাপাড়া এলাকায় বাইপাস সড়কে অটোরিকসাটিকে সামন থেকে একটি মালবাহী ট্রাক চাপা দেয়। এতে অটোরিকসার যাত্রী জবেদা খাতুন ও রাজা মিয়া ঘটনাস্থলেই মারা যান এবং অটোচালকসহ আরও ৬ জন আহত হন। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাঁদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পথিমধ্যে আবেদা খাতুন মারা যান। নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের মিয়া জানান দূর্ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। পরবর্তীতে আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নকলা থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে। ট্রাকটি আটক এবং চালককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।