শুভ বড়দিন উদযাপন, চলছে উৎসব। 


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৬, ২০২২, ৪:৩৮ অপরাহ্ন / ৫৭৬
শুভ বড়দিন উদযাপন, চলছে উৎসব। 

শুভ বড়দিন উদযাপন, চলছে উৎসব। 
ধর্মীয় আচার, প্রার্থনা ও আনন্দ-উৎসবের মাধ্যমে চট্টগ্রামের খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের মানুষ উদযাপন করছেন শুভ
বড়দিন।খ্রিষ্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিষ্ট এই দিনে ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের বেথলেহেম শহরের এক গোয়ালঘরে
জন্মগ্রহণ করেন। খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচার এবং মানব জাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালনা করার
জন্য যিশুখ্রিষ্ট জন্ম নিয়েছিলেন। বড়দিন উপলক্ষে রোববার (২৫ ডিসেম্বর) সরকারি ছুটি। দিনটি উপলক্ষে অনেক খ্রিস্টান পরিবারে কেক তৈরি করা হয়েছে, রয়েছে বিশেষ খাবারের আয়োজন। যা দিয়ে
আপ্যায়ন করা হচ্ছে অতিথিদের। পাথরঘাটা, ফিরিঙ্গীবাজার, জামালখান, পাহাড়তলীসহ বিভিন্ন এলাকায়
খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে চলছে উৎসব।  শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) থেকেই নগরে বড়দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। নগরের ফিরিঙ্গীবাজার গির্জা, জামালখান এ জি চার্চ, লাভ লেন গির্জাসহ বিভিন্ন উপাসনালয়ে বর্ণিল আলোকসজ্জার পাশাপাশি ক্রিসমাস ট্রি ও প্রতীকী গোশালা তৈরি করা হয়েছে। প্রার্থনা ও কীর্তনের পাশাপাশি বসেছে ধর্মীয় গানের আসর।
পাথরঘাটার পবিত্র জপমালা রানির গির্জায় এদিন রাত সাড়ে ৯টায় প্রথম ও রাত ১২টায় দ্বিতীয় প্রার্থনা অনুষ্ঠিত
হয়। প্রথম উপাসনা পরিচালনা করেন ফাদার লেনার্ড সি রিবে। এটি অনুষ্ঠিত হয় বাংলায়। দ্বিতীয় প্রার্থনা
পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন আর্চবিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদার। এটি পরিচালিত হয় ইংরেজিতে।
রোববার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে আটটায় আরেকটি প্রার্থনা পরিচালিত হয় জপমালা গির্জায়। এই প্রার্থনা
পরিচালনা করেন ফাদার লেনার্ড সি রিবেরু। একই সময়ে জামালখানে নির্মলা মারিয়ার গির্জায় ইংরেজিতে একটি
উপাসনা অনুষ্ঠিত হয়। এটি পরিচালনা করেন আর্চবিশপ লরেন্স সুব্রত হাওলাদার। এ ছাড়া বিকেলে আর্চবিশপ
হাউস প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয়েছে সুধী সমাবেশ।
বড়দিন উপলক্ষে বন্দর নগরীর গির্জাগুলোর নিরাপত্তায় সিএমপি’র ১৬ থানার অধীনে চেকপোস্ট ও নিয়মিত
টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে।  বড়দিনের বর্ণিল সাজে সেজেছে রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ। রেডিসনের লবি সাজানো
হয়েছে ২০ ফুট লম্বা ক্রিসমাস ট্রি দিয়ে। পাশেই রয়েছে সুদৃশ্য ক্রিসমাস হাউস। কুকি হাউসে রয়েছে ২০ পদের
কেক ও কুকিজ। ক্রিসমাসের বিশেষ ডিনারে আজ থাকছে অর্ধশতাধিক পদের সালাদ ও দারুণ সব ডেজার্ট।
ডিনারে জনপ্রতি খরচ পড়বে ৩ হাজার ৯৫০ টাকা। শিশুদের সাথে বড়দিনের আনন্দ আয়োজনে থাকছে
সান্তাক্লজের সান্নিধ্য। এছাড়া বড়দিন উপলক্ষ্যে মাত্র ১৬ হাজার ৯০০ টাকায় থাকছে নগরীর একমাত্র এই পাঁচ তারকা হোটেলে থাকার প্যাকেজ, যাতে অতিথিরা পাচ্ছেন ফ্রি বুফ্যে, ব্রেকফাস্ট এবং ডিনার। বড়দিনকে কেন্দ্র করে হোটেলের
রন্ধনশিল্পীরাও নানা চমক সৃষ্টিতে ব্যস্ত আছেন। নতুন বছরে অতিথি, পরিবার বা কাছের মানুষদের উপহার
হিসেবে দিতে থাকছে নানারকম লাঞ্চবক্স এবং উপহারসামগ্রী।

পুনঃনিরীক্ষণে ফেল থেকে পাস ৪৫ এসএসসি শিক্ষার্থী।
মোঃ ইব্রাহিম শেখ চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তরপত্র
পুনঃনিরীক্ষণে ফেল থেকে পাস করেছেন ৪৫ জন শিক্ষার্থী। এছাড়া নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে
২৪ জন শিক্ষার্থী। গতকাল শনিবার এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের ফল প্রকাশ
করে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড। চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক
নারায়ণ চন্দ্র নাথ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেন, ‘গত ২৯ নভেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য
আবেদন জমা নেওয়া হয়। ১৪ হাজার ৫২৫ শিক্ষার্থী উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন
করে। এর মধ্যে ৪৯৮টি উত্তরপত্র পরিবর্তন হয়েছে। ফেল থেকে পাস করেছে ৪৫ জন। গ্রড
পরিবর্তন হয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ শিক্ষার্থী। আর জিপিএ বেড়েছে ২৩৮ জন শিক্ষার্থীর।’
শিক্ষাবোর্ড সূত্র জানায়, বাংলা প্রথম পত্রে ২ হাজার ৪৭৮, বাংলা দ্বিতীয় পত্রে ১ হাজার ৫৬৭,
ইংরেজি প্রথমপত্রে ৭ হাজার ৪৯৩, ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রে ৪ হাজার ২৯৪, গণিতে ৩ হাজার ২৪০,
ভূগোল ও পরিবেশে ২৫৬, উচ্চতর গণিতে ১ হাজার ৫৭৯, কৃষি শিক্ষায় ৩৩৪, পদার্থ বিজ্ঞানে ১
হাজার ২৪২, রসায়নে ১ হাজার ৮৩৪, জীববিজ্ঞানে এক হাজার ৫৩৮, পৌরনীতি ও
নাগরিকতায় ২৬৪, অর্থনীতিতে ১৪২, ব্যবসায় উদ্যোগে ১ হাজার ১০, হিসাব বিজ্ঞানে ৪৪৯,
গার্হস্থ্য বিজ্ঞানে ২৫৩, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ৫০৫ এবং বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্ব সভ্যতা
বিষয়ে ২৩৩ জন শিক্ষার্থী উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করেছিল।
উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৮ নভেম্বর সারা দেশে এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এবছর
চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এক লাখ ৫০ হাজার ১১২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে
কৃতকার্য হয় এক লাখ ৩০ হাজার ১৩ জন। পাসের হার ছিল ৮৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ।
শিক্ষাবোর্ডের অধীনে জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ১৮ হাজার ৬৬৪ জন। এর মধ্যে ১০ হাজার ৮৮৯
জন ছাত্রী ও সাত হাজার ৭৭৫ জন ছাত্র।

নূরানী কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ: পাশেরহার ৯৭.৫৭%।

“আলমগীর ইসলামাবাদী চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি”
নূরানী তালীমুল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশ’র অধীনে দেশব্যাপী নূরানী মাদরাসা সমূহের কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষার ফলাফল আজ ২৫ডিসেম্বর২০২২ রোজ রবিবার দুপুর ১টার দিকে, বো‌র্ডের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছে।

বোর্ডের মুহতারম চেয়ারম্যান আল্লামা শাহ মুহাম্মাদ ইয়াহিয়া সাহেব (হাফি.) এর হাতে কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষার ফলাফল তুলেদেন বোর্ডের মুহতারম মহাসচিব আল্লামা মুফতি জসীমুদ্দীন সাহেব (হাফি.) ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মুফতী মুহাম্মাদ আলী সাহেব (হাফি.)।
ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বোর্ডের মজলিসে আমেলা ও শুরার সদস্যগণ এবং বোর্ডের সিনিয়র কর্মকর্তাগণসহ বিভিন্ন সংবাদ কর্মীগণ।

বোর্ডের অধীনে এবারের কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে মোট ৫১৩৫৪০জন। অনুপস্থিত মোট ১০১৩জন। মোট পাশ ৫১০৩২২জন। মোট ফেল ২১১৫জন। মোট জি.পি.এ ২৭৭৩২জন।
মোট প্রতিষ্ঠান ৭৫৪০টি। মোট কেন্দ্র ২২২৬টি।
পাশেরহার ৯৭.৫৭%
আল্লাহ তা’য়ালা সকলকে কবুল করুক।