“মাধবপুরে বিএনপির নেতা জাল জালিয়াতি করে জমি রেজিস্ট্রি, আদালতের নির্দেশে থানায় মামলা”


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১২, ২০২২, ৫:৪৬ অপরাহ্ন / ২৮৭
“মাধবপুরে বিএনপির নেতা জাল জালিয়াতি করে জমি রেজিস্ট্রি, আদালতের নির্দেশে থানায় মামলা”
“মাধবপুরে বিএনপির নেতা জাল জালিয়াতি করে জমি রেজিস্ট্রি, আদালতের নির্দেশে থানায় মামলা”
মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি –
হবিগঞ্জের মাধবপুরে বিএনপির নেতা অলি উল্লাহ ও সরু মিয়া জাল জালিয়াতি মাধ্যমে ওয়ারিশ সনদ দিয়ে জমি রেজিস্ট্রির ঘটনায় আদালতে মামলা করেছেন ভূক্তভোগী।
মামলা সূত্রে জানা যায়, মাধবপুর উপজেলার আন্দিউড়া ইউনিয়নের মীরনগর গ্রামের মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে মোঃ রফিক মিয়া পৈত্রিক সম্পত্তি জাল ওয়ারিশান সনদ বানিয়ে নামজারি ও পর্চা তৈরী করে রফিক মিয়ার ভাই আবেদ আলী,মোঃ জাবেদ মিয়া, ও মৃত গোলাম হোসেনের স্ত্রী মোছাঃ ললিতা বেগম। পরে  আবেদ আলী, জাবেদ মিয়া, ও মোছাঃ ললিতা বেগম থেকে রেজিস্ট্রি করে নেন আন্দিউড়া ইউনিয়নের হাড়িয়া গ্রামের মৃত মিয়া চান মিয়ার ছেলে মাধবপুর উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি মোঃ অলি উল্লাহ। এ ঘটনায় রফিক মিয়া বাদি হয়ে হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম‍্যাজিষ্ট্রেট-কগ-০৬ আদালতে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করলে বিজ্ঞ বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম‍্যাজিষ্ট্রেট  আমলী আদালত -১ (মাধবপুর) মোঃ জাকির হোসাইন অভিযোগটি আমলে নিয়ে মাধবপুর  থানাকে এফআইআর করার নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশে গত ৮ নভেম্বর মাধবপুর থানায় মামলাটি  নথিভুক্ত করা হয়েছে। মামলার বাদি রফিক মিয়া জানান, আবেদ আলী,জাবেদ আলী তার ভাই ও মোছাঃ ললিতা বেগম তার মা। তাদের বাবা মৃত্যুকালে ৩ ছেলে, ৩ কন‍্যা ও স্ত্রীকে ওয়ারিশ রেখে মারা যায়। রফিক মিয়া ও তার বোনেরা পড়ালেখা না জানা তাদের জায়গা জমি সঠিক ভাবে রেকর্ড করার জন্য হাড়িয়া গ্রামের অলি উল্লাহ ও মীরনগর গ্রামের আব্দুস সালাম ওরুফে সরু মিয়া কে দায়িত্ব দেওয়া হয়।  অলি উল্লাহ ও সরু মিয়া রফিক মিয়াকে  বাদ দিয়ে আবেদ আলী, জাবেদ মিয়া ও মোছাঃ ললিতা বেগমের নামে আন্দিউড়া ইউনিয়ন অফিস থেকে ওয়ারিশান সনদ নিয়ে নামজারি ও পর্চা তৈরী করে। পরে অলি উল্লাহ  আবেদ আলী, জাবেদ মিয়া,মোছাঃ ললিতা বেগম থেকে  জায়গা রেজিষ্ট্রী করে নেয়। রফিক মিয়া জানান,
সরু মিয়া একজন প্রতারক। সে বিভিন্ন লোকের জায়গা জমি প‍্যাঁচ লাগিয়ে অন‍‍্যের নামে করে দিয়েছে।আব্দস সালাম সরুর নামে ৪/৫টি মামলা রয়েছে। সম্পত্তি নুর ইসলাম নামে এক ব্যক্তি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট সরুর নামে  একটি লিখিত  অভিযোগ করেছেন।মাধবপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে।
বার্তা প্রেরক
নাহিদ মিয়া
মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি।
০১৭৫২১৮২৪৬৭
০১৭৫০০০৪৬৭৫