“বড়লেখা উপজেলা সুজাউল  বাজারে একরাতে ৫ টি দোকান চুরি হয়েছে”


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৪, ২০২২, ৬:৪৫ অপরাহ্ন / ৩১৪
“বড়লেখা উপজেলা সুজাউল  বাজারে একরাতে ৫ টি দোকান চুরি হয়েছে”
বড়লেখা উপজেলা সুজাউল  বাজারে একরাতে ৫ টি দোকান চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ হচ্ছে কিন্তু চোরেরা থেকে যাচ্ছে ধরা ছোয়ার বাইরে। শখের দোকান চুরির ঘটনায় মালিকেরা দিশেহারা হয়ে আছে।
মোঃনজরুল ইসলাম ক্রাইম রিপোর্টার
মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি –
মৌলভীবাজারের বড়লেখায় এক রাতে ৫ টি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের,সুজাউল   বাজারে এই চুরির ঘটনা ঘটে। সুজাউল বাজারের, ইসলামিয়া ট্রেডার্স, সালমান ভেরাইটিজ স্টোর, সোহেল টেলিকম এন্ড কম্পিউটার , ফার্নিচারের দোকান ও আফজল পেট্রোল পাম্পে তালা ভেঙে চুরির ঘটনা ঘটে।  (শুক্রবার ২১ অক্টোবর)  চুর রাতের আধারে দোকানের নগদ টাকা ও মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এতে পাঁচ ব্যবসায়ীর চার লাখ টাকার বেশি নগদ টাকা ও দোকানের মালামাল চুরি হয়েছে।
ভুক্তোভোগী ব্যবসায়ী, সোহেল আহমদ বলেন,প্রতিদিনের মতো রাত,দশ টার সময়,  দোকান বন্ধ করে বাড়ি চলে যাই। পরে রাত তিনটার দিকে এক সিএনজি ড্রাইভার আমার দোকানের শাটার খোলা দেখে আমাকে ফোন দেন। পরে আমি এসে দেখতে পাই দোকানের শাটার অর্ধেক খোলা। ভিতরে মালামাল এলোমেলো। এই ব্যাপারে দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের, চেয়ারম্যান নাহিদ আহমদ বাবলু, সুজাউল সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসা  হল রুমে, চুরি ডাকাতি প্রতিরোধকল্পে,বিশেষ,ব্যবসায়ীদের সাথে
মতবিনিময় সভায়   বক্তব্যতে বলেন, সিসি) ক্যামেরা দোকানে লাগানোর জন্য ব্যবসায়ীদের পরামর্শ দেন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও অপরাধী শনাক্ত করতে,সিসি) ক্যামেরা সহায়তা আসামিদের সনাক্ত করা যাবে, সিসি ক্যামেরা বাজারে লাগানোর জন্য তিনি ও সহযোগিতা করবেন বলে ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করেন।
বড়লেখা থানার নতুন যোগদান করা অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান, বলেছেন, মাদকের বিরুদ্ধে  চুরি ডাকাতি,মাদক সামাজিক অস্থিরতার একটি বড় কারণ। মাদক, চুরি ডাকাতি নির্মূলে যতটুকু কঠোর হওয়া দরকার তাই তিনি করতে চান। আসামিদের সনাক্ত করতে জনপ্রতিনিধি ও ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা দরকার আছে বলে তিনি বলেন।
মোঃনজরুল ইসলাম ক্রাইম রিপোর্টার
মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি
১০/২২/২০২২
০১৭৯২৩০১৮৩০