বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করা হয়েছে।


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৪, ২০২২, ৬:৩৮ অপরাহ্ন / ৩০৪
বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করা হয়েছে।
বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করা হয়েছে।
কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ
দেশের সেরা ও বিশ্বের অন্যতম বৈদ্যিুতিক তার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ।কুষ্টিয়ার বিসিকি শিল্পনগরীতে প্রতিষ্ঠিত স্বনামধণ্য এই শিল্প প্রতিষ্ঠানটি দেশের সীমানা পেরিয়ে বিশ^ দরবারে স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছে। করোনার কারণে ৪৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কুষ্টিয়া বিআরবি কেবলস এর প্রধান কার্যালয়ে আজ ২৩ অক্টোবর শুধু  দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করা হয়েছে। বিআরবি গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ মজিবর রহমানসহ কর্মকর্তা-কর্মচারিগণ উপস্থিত থাকবেন।
গুনগত মানসম্পন্ন পন্য উৎপাদনের মাধ্যমে বিআরবি কোম্পানী দেশ-বিদেশের মানুষের কাছে আস্থা অর্জন করেছে। এই কোম্পানীর অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কিয়াম মেটাল ইন্ডাষ্টিজ লিঃ, এমআরএস ইন্ডাষ্টিজ লিঃ ও বিআরবি পলিমার লিঃ এর মত বড় বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানের বাইরে সিকিউরিটিজ,এয়ারসার্ভিস,স্বাস্থ্যসেবা,কিয়াম ছিরাতুন নেছা মেমোরিয়াল ট্রাষ্ট, শিক্ষা ও মানবসেবাসহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান বিআরবি শিল্প  প্রতিষ্ঠানের আওতায় পরিচালিত হচ্ছে। আর এই প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার কুষ্টিয়ার কৃতিসন্তান দেশ বরেণ্য শিল্পপতি বিআরবি গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোঃ মজিবর রহমান। তিনি বেশ কয়েকবার সিআইপি নির্বাচিত হন। শিল্পপদক ও জাতীয় রপ্তানিতে বিশেষ অবদান রাখায় প্রেসিডেন্ট ও  প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক কয়েকবার জাতীয় স্বর্ণপদক লাভ করেন। সব মিলিয়ে মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং দেশের গৌরব বয়ে আনার অন্যতম দাবীদার বিআরবি গ্রুপের স্বপ্নদ্রষ্টা মোঃ মজিবর রহমান নিজকে উৎসর্গ করেছেন কাজের পেছনে। নানা প্রতিকুলতা সত্বেও ইস্পাত কঠিন দৃড়তা রয়েছে তার। কঠিন অধ্যাবসায় ও সততার সাথে কোন চেষ্টা করলে তার ফলাফল অবশ্যই ভাল হয়,এর বাস্তব প্রমান তিনি। ১৯৭৮ সালের ২৩ অক্টোবর তিনি গড়ে তোলেন বিআরবি কেবল ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড। পণ্যের গুনগত মান বজায় রাখার কারনে এ শিল্প প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিশ^জুড়ে পরিচিতি লাভ করেছে। বিশ্বের আধুনিক যন্ত্রপাতি,উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার ও পন্যের গুনগত মান নিয়ন্ত্রনের ফলে বিআরবি কেবলস্ ইন্ড্রষ্ট্রিজের বৈদ্যুতিক তারসহ অন্যান্য পন্য সামগ্রী দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশের বাজারেও রপ্তানী হচ্ছে। পন্য উৎপাদন ও গুনগত মান রক্ষার জন্য আইএসও সনদ লাভসহ বিশ্বের প্রায় ২শ’টি দেশের তিন হাজার কেবলস্ কোম্পানীর মধ্যে নির্বাচিত ৫০টি শীর্ষস্থানীয় কোম্পানী মধ্য থেকে বিশ্ব র‌্যাংকিং-এ কুষ্টিয়ার বিআরবি কেবলস্ ইন্ড্রাষ্টিজ ৩৩ তম স্থান লাভ করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জলসহ এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
এছাড়া মান সম্পন্ন পন্য প্রস্তুতকারী ও বিশেষ অবদান রাখার জন্য বিআরবি কেবলস্ ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড বিভিন্ন সময় সরকারের কাছ থেকে নানা পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে। এরমধ্যে বাংলাদেশ এডুকেশন স্কলারশীপ ট্রাষ্ট স্বর্ণপদক,শের-ই-বাংলা একে ফজলুল হক স্বর্ণপদক,১০ম গোল্ডেন আমেরিকা এ্যওয়ার্ড,জাতীয় রপ্তানী ট্রফি (স্বর্ণ) বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।  বর্তমানে ওই শিল্প প্রতিষ্ঠানটি দেশের শীর্ষস্থানীয় বৈদ্যুতিক ওয়্যারস এন্ড কেবলস্ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। এ শিল্প প্রতিষ্ঠানে ডোমেষ্টিক কেবল থেকে ৩৩ কেভি এইচটিপিভিসি ও এক্সএলইপি কেবলস্, ১৩২ কেভি এ্যালমুনিয়াম কন্ডাক্টর,এফআরএলএস কেবলস্,জেলি ফিল্ড টেলিফোন কেবলস্ ও বৈদ্যুতিক ফ্যান তৈরী হচ্ছে। বিআরবি গ্রুপের নতুন সংযোজন হচ্ছে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ১শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুত কেন্দ্র স্থাপন। শুধুমাত্র নিজস্ব শিল্প কারখানার বিদ্যুত চাহিদা মেটাতে বিদ্যুত কেন্দ্রটিতে ১১ মেগাওয়াট উৎপাদনের ব্যবস্থা রয়েছে।
জাপানের দাইহাতসু কোম্পানী থেকে আমদানীকৃত অত্যাধুনিক ৩টি ডুয়েল ফুয়েল জেনারেটরের মাধ্যমে উৎপাদিত ‘বিআরবি এনার্জি লিমিটেড’ নামকরনে তেলভিত্তিক ওই বিদ্যুত কেন্দ্রটি  স্থাপন করা হয়।  বিআরবি’র অন্যান্য শিল্প প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কিয়াম মেটাল ইন্ড্রাষ্টিজের তৈরী এ্যালমুনিয়াম তৈজষপত্র, ননষ্টিক কীচেন ওয়্যার,প্রেসার কুকার,রাইচ কুকার, হটপট ইত্যাদি দেশের বাজারে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে এবং  ক্রেতাদের কাছে সমাদৃত হয়েছে।  পাশাপাশি এমআরএস ইন্ডাষ্টিজের আপ-কাষ্টিং ও কন্টিন্যুয়াস কাষ্ট পদ্ধতিতে আমদানী বিকল্প কপারওয়্যার রড ও এ্যালমুনিয়াম ওয়্যার রড ও কপার ষ্ট্রীপ উৎপাদন ও বাজারজাত হচ্ছে। ফলে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের পাশাপাশি বিআরবি গ্রুপ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নসহ দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখছে। এছাড়া বিআরবি গ্রুপের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে ফার্নিচার ও ডেকোরেশনের জন্য কাঠের বিকল্প পার্টিকেল বোর্ড, লেমিনেশন বোর্ড,বৈদ্যুতিক লাইন ও পানির লাইনসহ গভীর-অগভীর নলকুপের জন্য উন্নত মানের পিভিসি পাইপ উৎপাদিত হচ্ছে। এসব পন্য সামগ্রীও গ্রাহকদের যথেষ্ট গ্রহনযোগ্য ও সমাদৃত হয়েছে। বিআরবি গ্রুপের শিল্প প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে প্রায় ১০ হাজার শ্রমিক-কর্মচারী কাজ করছে। শিল্পপতি আলহাজ্ব বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ মজিবর রহমান জানান, আর্থ-সামজিক উন্নয়ন ও শিল্প ভাবনা থেকেই তিনি শিল্পায়নে মনোনিবেশ করেন। পরবর্তীতে শিল্প-কারখানা প্রতিষ্ঠায় তার মেধা, অধ্যবসায় ও  কঠোর পরিশ্রমের ফলে বিআরবি গ্রুপ অব ইন্ডাঃ দেশের বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।
এই শিল্প  প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি কুষ্টিয়াতে বিআরবি গ্রুপের চেয়ারম্যানের সহধর্মিনীর নামে সেলিমা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নির্মান কাজ অনেক দুর এগিয়েছে। এখানে দরিদ্র থেকে উচ্চবিত্ত শ্রেনীর রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা সুবিধা থাকবে। বিআরবি’র চেয়ারম্যানের সহধর্মিনী সেলিমা ১৫ তলাবিশিষ্ট নির্মানাধীন হাসপাতালটির নির্মান কাজ চলছে। উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের মধ্যে অত্যাধুনিক ও সর্বশ্রেষ্ট হাসপাতাল হবে বলে জানা গেছে। এছাড়া ঢাকায় বিআরবি হাসপিটালস্ লিঃ নামে বিআরবি’র আরেকটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল চালু হয়েছে।