“বান্দরবান মাইক্রোবাস শ্রমিকের নবনির্বাচিত কমিটির শপথগ্রহণ”


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৪, ২০২২, ৬:০৫ অপরাহ্ন / ৪২১
“বান্দরবান মাইক্রোবাস শ্রমিকের নবনির্বাচিত কমিটির শপথগ্রহণ”
“বান্দরবান মাইক্রোবাস শ্রমিকের নবনির্বাচিত কমিটির শপথগ্রহণ”
আবুবকর ছিদ্দীক বান্দরবান প্রতিনিধিঃ
বান্দরবানের জীপ-কার-মাক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে নব-নির্বাচিত কমিটির অভিষেক ও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বান্দরবান হিলভিউ কনভেনশন সেন্টারে নবনির্বাচিত কার্যকরী কমিটির অভিষেক, শপথ গ্রহণ ও পরিচিত সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বান্দরবান মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন এর নব নির্বাচিত সভাপতি মো. জাফর ইকবালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।
অনুষ্ঠানে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি থেকে মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন এর নব-নির্বাচিতদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এসময় বান্দরবান মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত সহ-সভাপতি মো. জাফর ইকবাল, সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ, শ্রমিক ইউনিয়ন নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আলমগীর, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান হোসেন বাচ্চু, কোষাধ্যক্ষ মোঃ বাদশা, প্রচার সম্পাদক মোঃ জাহেদ, দপ্তর সম্পাদক মোঃ সাইফুলসহ শপথ গ্রহনের অংশ নেন। বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, বান্দরবান জেলা এখন একটি পর্যটন শহর নগরী। কক্সবাজারের পরে দ্বিতীয় স্থানে বান্দরবানের নাম উঠে আসে। এখানে দেশি-বিদেশি হাজারো পর্যটক আসে ঘুরতে। পর্যটকরা আমাদের অতিথি, অতিথিদের যেভাবে সম্মান করা দরকার আমরা তাদেরকে সেভাবে সম্মান করবো।
তিনি চালকদের উদ্দেশে বলেন, চালক ভাইরা যদি তাদের সাথে সুন্দর আচরণ করে তাহলে সেই পর্যটক দেশে-বিদেশে বান্দরবানের সুনাম ছড়িয়ে দিবে। যার ফলে বান্দরবানে আরো বেশি বেশি পর্যটক আসবে। পর্যটক আসার কারণে আপনাদের জীবনে চলার মান আরো উন্নত হবে। আর যদি আপনারা পর্যটকদের সাথে ভাল ব্যবহার না করেন তাহলে তারা বান্দরবান সম্পর্ক একটা খারাপ মন্তব্য করবে যার ফলে আপনি একজনের জন্য পুরো বান্দরবানের মানুষকে তারা খারাপ বলবে। সেজন্য আপনারা আর বেশি সেবা দানের মানসিকতা নিয়ে গাড়ি চালাবেন, আর আপনারা নিয়মের বাইরে অতি জোরে গাড়ি চালাবেন না। কারণ একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না।
অনুষ্ঠানে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, আর্ম পুলিশের এডিশনাল ডিআইজি মোঃ আলী আহমেদ, বান্দরবানের পুলিশ সুপার মোঃ তারিকুল ইসলাম পিপিএম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ- পরিচালক লুৎফর রহমান, পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রহিম চৌধুরী, বান্দরবান বিআরটিএ সহকারী পরিচালক মোঃ আনোয়ার হোসেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, শৈলশোভা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুছ, বান্দরবান ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি বাবু অমল কান্তি দাশসহ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।