“বটিয়াঘাটা উপজেলার  খুলনা  চালনা রাস্তার পশ্চিম পাশে কিসমত ফুলতলা গ্রামের জেএমআই গ্রুপের অপজিটে”


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৬, ২০২২, ৪:১৯ অপরাহ্ন / ৩১০
“বটিয়াঘাটা উপজেলার  খুলনা  চালনা রাস্তার পশ্চিম পাশে কিসমত ফুলতলা গ্রামের জেএমআই গ্রুপের অপজিটে”

“বটিয়াঘাটা উপজেলার  খুলনা  চালনা রাস্তার পশ্চিম পাশে কিসমত ফুলতলা গ্রামের জেএমআই গ্রুপের অপজিটে”

আক্তারুল ইসলাম খুলনা বটিয়াঘাটা –

মেঘা কফি সপে গতপরশু সোমবার দিবাগত রাতে ২৪টি বেঞ্চ যার আনুমানিক মূল্য ৭২হাজার টাকা বিবাদীগণ নদীতে ফেলে দেয়। যারই প্রেক্ষিতে থানায় একটি জিডি এন্ট্রি করেন যার জিডি নং- ১০৬৮, তারিখ- ২৫/১০/২০২২ জিডির সূত্রে জানা যায়, মহিউদ্দিন আহম্মেদ,জসীম উদ্দিন ও মিজানুর রহমান ,মৃনাল মাহাত সহ আরো অজ্ঞতনামা কয়েকজন লোক তার ঐ কফিসপের বেঞ্চগুলো নদীতে ফেলে দেয়। সূত্রে প্রকাশ গত ইংরেজি ১৬/০৬/২০২২ তারিখে রাত অনুমান ০২টার দিকে তার রেস্টুরেন্টটিতে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে ফেলে প্রায় ৩ লক্ষধীক টাকার ক্ষতি সাধন করে । আগুন লাগা অব¯’ায় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা ঘটনা ¯’লে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে আনতেই ঘরটি পুড়ে ভষ্মিভূত হয়ে যায়। পরদিন সকালে বিষটি নিয়ে ভূক্তভুগী বটিয়াঘাটা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনা¯’ল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। অন্যদিকে জেএমআই গ্রুপ এলাকার সংখ্যলঘু সম্প্রদায়ের জমি জোর করে দখল করে ঘিরে নিয়েছে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে অবসর প্রাপ্ত এ,এস,পি নিখিল চন্দ্র মন্ডল গত ইংরেজী ১৬/০৯/২০২২ তারিখে বটিয়াঘাটা থানায় একটি লিখিত জিডি দায়ের করেন। এব্যপারে অবসর প্রাপ্ত এ,এস,পি নিখিল চন্দ্র মন্ডল এর নিকট জানতে চাইলে উনি বলেন জেএমআই গ্রুপ আমার নিজেস্ব ৩একর সম্পত্তির রোপনকৃত ফসলে ক্ষতিকারক কিটনাষক প্রয়োগ করে নষ্ট করে দিয়েছে । যা এলাকার শত শত মানুষের জনশ্রুতি রয়েছে। উনি আরো বলেন জেএমআই গ্রুপ এলাকার খেটে খাওয়া মানুষের ফসলী জমি জোর করে দখল করে নিয়েছে। তাদেরকে কিছু বলতে গেলে তাদের ভাড়াটিয়া গুন্ডারা আমাদেরকে মেরে ফেলা সহ জান-মালের ক্ষতি করবে বলে হুমকি ধামকি দিতে থাকে। এছাড়া মেঘা কফিসপের স্বত্বাধীকারি মোঃ ইমরান হোসেন সুমনের কাছে জানতে চাইলে উনি বলেন সদ্য ঘটে যাওয়া ঘটনাটি জেএমআই গ্রুপের পক্ষ থেকেই ঘটেছে তাছাড়া গত ইং ১৬/০৬/২০২২ তারিখে আমার কফিসপটি তাদেরই পক্ষ থেকে পুড়িয়ে ফেলে । যা এলাকায় জনশ্রুতি রয়েছে। উনি আরো জানান জেএমআই গ্রুপের পক্ষ থেকে আমার ঐ জায়গাটি ক্রয় করে নেওয়ার জন্য একাধীক বার আমার নিকট প্রস্তাব পাঠিয়েছে। আমি তাদের উক্ত প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তারা বার বার আমার এই ক্ষতি সাধন করছে। আমি এব্যপারে প্রশাসনের উদ্ধর্তন মহল সহ মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর আশু হ¯’ক্ষেপ কামনা করছি।