“ফেনীতে বাঙ্গালীয়ানের ব্যাতিক্রম ভর্তা উৎসবের আয়োজন”


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৮, ২০২২, ৬:২৭ অপরাহ্ন / ২৫০
“ফেনীতে বাঙ্গালীয়ানের ব্যাতিক্রম ভর্তা উৎসবের আয়োজন”
“ফেনীতে বাঙ্গালীয়ানের ব্যাতিক্রম ভর্তা উৎসবের আয়োজন”
আবুল হাসনাত রিন্টু, ফেনী প্রতিনিধি –
ভোজন রসিক বাঙালির খাওয়া-দাওয়ার জন্য উৎসব পার্বণের অজুহাত লাগে না। ভরপেট খাবার-দাবার হলেই, সময়টাকে উৎসবে পরিণত করতে বাঙালির জুড়ি নেই। তারই দৃষ্টান্ত স্থাপনায় শনিবার (২৬ নভেম্বর) ফেনীতে ব্যাতিক্রম ভর্তা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। নবান্নের লগ্নে ও শীতের আগমনে প্রকৃতি সৌন্দর্যের রঙ ছড়াচ্ছে। এমনই এক সময়ে ফেনীতে অনুষ্ঠিত হলো ব্যতিক্রমী ভর্তা উৎসব। শনিবার (২৬ নভেম্বর) শহরতলীর বিসিক শিল্প এলাকার কসুমবাগ স্টেটে এ ব্যতিক্রমী উৎসবটির আয়োজন করা হয়। উৎসবটি আয়োজন করে সার্ভিস প্রোভাইডার প্রতিষ্ঠান ইজিলাইফ ও বাঙালি খাবারের প্রতিষ্ঠান বাঙালিয়ানা। শিম ভর্তা, শুটকি ভর্তা, রসুন ভর্তা, মরিচ ভর্তা, ডাল ভর্তা, বেগুন ভর্তা, টমেটো ভর্তা, বরবটি ভর্তা, মাছ ভর্তা, ধনেপাতা ভর্তা, কালোজিরা ভর্তা, আলু ভর্তা, পটল ভর্তা, লতি ভর্তা, কলা ভর্তাসহ ২০ অধিক পদের ভর্তা দিয়ে দুই শতাধিক মানুষের দুপুরের ভোজের আয়োজনটি আয়োজিত হয়।
আয়োজক শহিদুল মিশু জানান, বাংলা ও বাঙালির উৎসবে ভর্তার দাপট কম নয়। নানা স্বাদের ও নানা পদের ভর্তা সব সময়ই বাঙালি সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা এ আয়োজনটি করেছি। বাঙালির প্রিয় খাবারে ভর্তাই তো হতে পারে উৎসবের প্রধানতম অনুষঙ্গ। ফেনীতে আমরা এ উৎসবের আয়োজন করেছি। আশা রাখছি, প্রতি বছরই এমন একটা উৎসব আয়োজন করতে পারব। দিনব্যাপী এ উৎসবে মিউজিক্যাল চেয়ার, চাকতি নিক্ষেপ, প্রতিভা অন্বেষণসহ বিভিন্ন আয়োজন ছিলো। অনুষ্ঠানে র‍্যাফেল ড্রতে বিজয়ীদের দেয়া হয় আকর্ষণীয় পুরষ্কার। ব্যতিক্রমী এ উৎসবে সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ছিলো কারমো ফোম, সাইমুম ইভেন্টস, এ ফোর ফটোগ্রাফী ও এ ফোর বি ডিজাইন, এক্সপোর্ট জোন এবং দারুচিনি।
“ফেনীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু”
আবুল হাসনাত রিন্টু , ফেনী প্রতিনিধি –
ফেনীতে ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে আবু বক্কর (২৪) নামে  বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাত আটটার দিকে ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের পিঠাপাশারী গ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তিনি ফেনী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সৈয়দনগর এলাকার মো. ফজল হকের ছেলে। আবু বক্কর পাইপ ফিটারমিস্ত্রি ছাড়াও বিদ্যুৎমিস্ত্রির কাজও করতেন।
পুলিশ ও স্থানীয় ব্যক্তিরা জানান, শনিবার রাত আটটার দিকে নিজ বাড়ির অদূরে ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের পিঠাপাশারী এলাকায় ব্যাডমিন্টন খেলতে যান আবু বকর। এ সময় বিদ্যুৎ লাইনে সমস্যা দেখা দেয়। তিনি বিদ্যুতের সংযোগ নিতে বাঁশ দিয়ে বিদ্যুতের খুঁটিতে তার লাগানোর সময় বিকট শব্দ হয়। ওই শব্দ শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আবু বক্করকে বিদ্যুতের খুঁটির নিচে মাটিতে লুটিয়ে থাকতে দেখতে পান। পরে স্থানীয় ব্যক্তিরা তাকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বর্তমানে মরদেহ ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে।
আবু বক্করের বাবা ফজল হক হাসপাতালের মর্গের সামনে দাঁড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ছেলে বাড়ি থেকে খেলতে যাওয়ার আগে তার মাকে বলে এসেছিল, খেলা শেষে বাড়ি গিয়ে ভাত খাবে। আর কোনো দিন মায়ের হাতে ভাত খাওয়া হবে না।
“ফেনীতে অজ্ঞাত ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার”
আবুল হাসনাত রিন্টু, ফেনী প্রতিনিধি-
ফেনীতে অজ্ঞাত দ্রুতগামী গাড়ির ধাক্কায় একজন পথচারী (৬০) নিহত হয়েছেন। তবে নিহতের পরিচয় মেলেনি। শনিবার (২৬ নভেম্বর) রাতে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার লেমুয়া ভাঙ্গার তাকিয়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায় শনিবার রাতে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার লেমুয়া ভাঙ্গার তাকিয়া নামক স্থানে দ্রুতগামীর একটি অজ্ঞাত গাড়ির ধাক্কায় এক ব্যক্তি আহত হয়ে সড়কের পাশে পড়ে থাকে। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ দ্রুত ওই স্থানে পৌঁছায়। সেখানে গিয়ে দেখেন সড়কের পাশে এক ব্যক্তির মরদেহ পড়ে আছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়য়ছে।
মহিপাল হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রিয়াজুল ইসলাম জানান, ওই ব্যক্তির আনুমানিক বয়স ৬০-৬২ বছর। মুখে দাঁড়ি, গায়ে গেঞ্জি ও পরনে লুঙ্গি রয়েছে। রাতে ওই এলাকায় তার কোনও পরিচয় জানা যায়নি। রাতেই তার পরিচয়ের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেটর (পিবিআই) নিহতের আঙুলের ছাপ সংগ্রহ করে। এ ঘটনায় আইনগত প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।