ফকিরহাটে চোরের ভ্যান গাড়ি বিক্রয়ের টাকা ডাকাতির আসল রহস্য।


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২৩, ৩:২৯ অপরাহ্ন / ৬২
ফকিরহাটে চোরের ভ্যান গাড়ি বিক্রয়ের টাকা ডাকাতির আসল রহস্য।
ধারাবাহিক অনুসন্ধানী প্রতিবেদন পর্ব- ২
°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°
মেহেদী হাসান নয়ন, বাগেরহাট।
বাগেরহাট ফকিরহাট উপজেলার পাগলা উত্তর পাড়া গ্রামে আজিজ মাষ্টার এর বাড়ির সামনে বিশ্বরোডে দু’জন চোর আটক করে জনতা।অতঃপর ঘটনা স্থানে পুলিশ এসে বাদি না পেয়ে,ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আলি হোসেন সহ উপস্থিত জনতার সাক্ষী নিয়ে ছেরে দেয়। গ্রিল চোর ছারা পেয়ে পালিয়ে যায়।সঙ্গে থাকা ভ্যান চালক রুপসা উপজেলার সুকুর মিয়ার ভ্যান গাড়িটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আলি হোসেন, মোঃ জাকির হোসেন ও মোঃ টিটু শেখ মিলে ভ্যান গাড়ি তাদের জিম্মায় রেখে সুকুর মিয়াকে ছেরে দেয়। তার কয়েকদিন পর জনমুখে জানানি হয় চোরের সহযোগীর ভেন গাড়ি’টি মোঃ টিটু শেখ এর মাধ্যমে বিক্রয় করে ২০.০০০/= টাকা।
ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আলি হোসেন আওয়ামী লীগের অফিস করার জন্য ১৩০০০/= টাকা রাখেন, বাকি ৭০০০/= টাকার ৫০০০/= টাকা মোঃ টিটু শেখ এর কাছে বাকি ২০০০/= টাকা রিপন নামের এক ব্যক্তির কাছে। চোরের ভেন গাড়ি জিম্মা রাখার বিষয়টি জেলার ফকিরহাট উপজেলার ৪নং সদর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান শিরানা আক্তার কিসলু
পলাতক অপর অভিযুক্ত মোঃ টিটু শেখে বলেন, জিম্মা রাখা ভ্যান’টি আমাকে মোঃ জাকির শেখ রহমান মেম্বারের কাছে দিতে আমি চোরের ভ্যান গাড়িটি নিয়ে সদর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড এর ইউপি সদস্য মেম্বার আব্দুর রহমানের কাছে পৌঁছানোর পরে আমাকে একটি শর্তের মাধ্যমে ৫০০০ টাকা দিয়ে বলেন আটক ভ্যান চুরির কোন কথা কাউকে বলবে না।এই বিষয় জানা জানি হলে আলির কথা বলবি।
অভিযুক্ত শেখ জাকির জানান, আমার কাছে সব ডকুমেন্টস আছে, আমার যদি কোন দরবারে এ ভ্যান গাড়ির শালিসে বসা লাগে তাহলে এর সত্য ঘটনা তুলে ধরবো ইনশাআল্লাহ,আসল চোরের নাম বের হয়ে যাবে।
এ বিষয়ে ৪ নং ওয়ার্ড এর ইউপি সদস্য আব্দুর রহমান জানান, আমি চোর এর সম্পর্কে কিছু জানিনা ভেন জিম্মা রাখা হয়েছে তবে ভেন গাড়ি বিক্রিয় সম্পর্কে কিছু বলতে পারি না।
অভিযোগকারী সুকুর আলী জানান, আমাকে চোর উপাধি দিয়ে অমানুষিক নির্যাতন করে আমার শেষ সম্ভব একটা ভেন গাড়ি জিম্মায় রেখেছেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আলি হোসেন ও উপস্থিত জনতা আমি আমার শেষ সম্বল টুকু ফেরত পেতে চাই।
বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিক একাকাধি বার ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির মুঠোফনে কল দিলে তার ব্যবহারকিত হ্যান্ডসেটটি বন্ধ পাওয়া যায়, তবে ওই এলাকার কিছু গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দাবি অতি দ্রুত এ ঘটনার সঠিক বিচার করা হক তাহলে যেমন এক দিকে চোরের ভেন গাড়ি ডাকাতির আসল রহস্য উন্মোচন হবে অন্য দিকে নিরীহ ভেন চালক তার রোজগার করার শেষ সম্বল টুকু ফিরে পাবে এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।