“নেটিং পদ্ধতিতে মুরগি পালন করে স্বাবলম্বী জয়পুরহাটের নারীরা।”


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৫, ২০২২, ৬:৩৭ অপরাহ্ন / ২২৩
“নেটিং পদ্ধতিতে মুরগি পালন করে স্বাবলম্বী জয়পুরহাটের নারীরা।”
“নেটিং পদ্ধতিতে মুরগি পালন করে স্বাবলম্বী জয়পুরহাটের নারীরা”
মোঃ আমজাদ হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার জয়পুরহাট –
জয়পুরহাটের সদর ও আক্কেলপুর উপজেলায় আধা নিবিড় বা নেটিং পদ্ধতিতে রাসায়নিক মুক্ত দেশি মুরগী পালন করে স্ববালম্বী হয়েছেন ৭০ নারী এসব নারীরা আগে বাড়ির আনাচে কানাচে  গতানুগতিক  খোলামেলা ভাবে মুরগী পালন করায় শিয়াল, কুকুর, বেজি সহ বিভিন্ন জীব জন্তু সেগুলোকে খেয়ে ফেলায় তাদের লোকসান গুনতে হতো।
পরে স্থানীয় বেসরকারি সেবা সংস্থা জয়পুরহাট রুরাল ডেভল পমেন্ট জিআরডিএম থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বাড়ির আঙ্গিনায় আধা নিবিড় বা নেটিং পদ্ধতিতে দেশি মুরগী পালন করেে এখন নিজের পরিবারের পুষ্টির চাহিদা মিটিয়ে বাজারে বিক্রি করে আয়ও করছেন তারা। জয়পুরহাট রুরাল ডেভল পমেন্ট জেআরডিএম প্রতিষ্টার পর থেকে সমাজের অবহেলিত নারীদের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে চলছে সেই ধারাবাহিকতায় পিকেএসফের এর সহযোগিতায় ও বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে জয়পুরহাটের দুটি উপজেলার অবহেলিত নারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশি মুরগি পালনে প্রায় ৭০ জন সফল উদ্যোক্তা তৈরী করেছেন। নিরাপদ  ও রাসায়নিক মুক্ত মাংসের চাহিদা পুরুণে আগামীতে জেলার অন্যান্য উপজেলাও নারীদের সংপৃক্ত করা হবে বলে জানান সংস্থার নির্বাহী পরিচালক রাজিয়া সুলতানা নির্বাহী পরিচালক জেআরডিএম কর্মকর্তা।