নাটোরের গুরুদাসপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মো.আব্দুল কুদ্দুস এমপি।


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২, ২০২৩, ৬:৫১ অপরাহ্ন / ২৪০
নাটোরের গুরুদাসপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মো.আব্দুল কুদ্দুস এমপি।
নাটোরের গুরুদাসপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মো.আব্দুল কুদ্দুস এমপি।
মোঃ সোহাগ আরেফিন গুরুদাসপুর নাটোর প্রতিনিধি –
নাটোরের গুরুদাসপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে বই বিতরণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মো.আব্দুল কুদ্দুস এমপি।
খুবজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে রবিবার বেলা ১১ টার দিকে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি আব্দুল কুদ্দুস ছাড়াও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন, উপজেলা নির্বাহি অফিসার শ্রাবণী রায়, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ওয়াহেদুজ্জামান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. মনিরুল ইসলাম দোলন, অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আনিসুর রহমান সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
নাটোরের লালপুরের কদিমচিলান  ইউ’পির সাবেক চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে যখম করা হয়েছে।
মেহেরুল ইসলাম মোহন লালপুর উপজেলা প্রতিনিধি –
নাটোরের লালপুর উপজেলার কদিমচিলান ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাককে কুপিয়ে যখম করা হয়েছে।
রোববার(১লা জানুয়ারি-২০২৩) বেলা ৩টার দিকে লালপুর উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া চিলান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে বনপাড়া আমিনা হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
অত্র ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য রেজাউল করিম বলেন, ডাঙ্গাপাড়া চিলান গ্রামের ওসমান গনির সাথে মোজাম জোয়ার্দ্দারের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। সেই বিরোধ নিরসনের জন্য কদিমচিলান ইউনিয়ন পরিষদে শালিস হয়। ওই শালিসে প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রাজ্জাক। ওসমান গনির ধারনা আব্দুর রাজ্জাকের কারনেই তারা জমি পাচ্ছে না। রোববার দুপুরে সেই সুত্র ধরে মৃত বুদ্ধ জোয়ার্দ্দারের ছেলে আবু জাহেল (৪৫), হাফিজ আলী (৪২), আবু জাহেলের ছেলে আবু কাহার (২৫) মিলে হাসুয়া ও কোদাল দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে ও মারধর করে রক্তাক্ত জখম করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে আমিনা হাসপাতালে  ভর্তি করে।  সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
লালপুর থানার ওসি মোনোয়ারুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
মেহেরুল ইসলাম মোহন
লালপুর উপজেলা প্রতিনিধি
০১/০১/২৩
০১৭৭৭-০৯৩১১৬

Bangladesh It Host