ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে শ্রীঘরে!


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৩, ২০২২, ৬:৩৭ অপরাহ্ন / ৩০১
ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে শ্রীঘরে!
ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে শ্রীঘরে!
জসীমউদ্দীন ইতি,  ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ
আজ শনিবার(২২ অক্টোবর) ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক অফিসের অফিস কাম মুদ্রাক্ষারিক ও কম্পিউটার অপারেটর পদে (১৩-১৬ গ্রেড) নিয়োগ পরীক্ষায় ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে একজন ভুয়া পরীক্ষার্থী আটক করা হয় এবং ভ্রাম্যমাণ  আদালত তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।  ভুয়া পরীক্ষার্থীর নাম সুমন দেবনাথ(২৯), পিতার নাম- কৃষ্ণলাল দেবনাথ। বাড়ি নোয়াখালী। তিনি নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজীতে অনার্স ও মাষ্টার্স করেন।
ঘটনার বিবরণ থেকে জানা যায়,  ভুয়া পরীক্ষার্থী সুমন দেবনাথ, মোঃ ইউনুস আলী, পিতা-মকবুল হোসেন, মধুপুর, সনগাঁও, বালিয়াডাঙ্গী এর সাথে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ হয়ে পরীক্ষা দিতে এসে ১২৮ নং কক্ষে কক্ষপরিদর্শক মোঃ মামুন অর-রশীদের কাছে হাতেনাতে ধরা পড়েন। পরে দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট একমাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। পরীক্ষার হল সচিব এবং ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, বেলা ১০.৫০ মিনিটে আমি কক্ষ পরিদর্শনে ছিলাম ঠিক সেই সময় চেঁচামেচি শব্দ শুনে চারতলা নিচে নেমে দেখি উক্ত ভুয়া পরীক্ষার্থীকে ধরে কক্ষ পরিদর্শক অফিসের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন, পরে জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত ভুয়া পরীক্ষার্থী তা স্বীকার করেন।
কেন্দ্রের দায়িত্বশীল ম্যাজিস্ট্রেট ইন্দ্রজীদ সাহা বলেন, আমি কক্ষ পরিদর্শনে ছিলাম, বেলা এগারটার দিকে কক্ষপরিদর্শক ভুয়া পরীক্ষার্থী চিহ্নিত করলে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে হাতে নাতে ধরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।
জসীমউদ্দীন ইতি
০১৭৫১০৭৯৮২৩
ঠাকুরগাঁও