খুলনার দাকোপে ব্যক্তি উদ্যোগে চলছে পানখালির রাস্তার কাজ; জনপ্রতিনিধিরা নিরব


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ২, ২০২৩, ৩:৪৪ অপরাহ্ন / ১৮১
খুলনার দাকোপে ব্যক্তি উদ্যোগে চলছে পানখালির রাস্তার কাজ; জনপ্রতিনিধিরা নিরব
মোঃ শামীম হোসেন – খুলনা প্রতিনিধিঃ-
খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার ১ নং পানখালি ইউনিয়নের ২,৩ ও ৪ নং ওয়ার্ডের রাস্তার কাজ হচ্ছে ব্যক্তি উদ্যোগে। মেইন রোডটি দীর্ঘদিন যাবত বেহাল অবস্থাতে পড়ে থাকলেও চোখে পড়েনি কোন জনপ্রতিনিধির। অবশেষে এলাকার মানুষের কথা বিবেচনা করে জাহিদুর রহমান মিল্টন কাজের উদ্যোগ নিয়েছেন। এলাকাবাসী জানান এই প্রধান সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত চার থেকে পাঁচ হাজার লোক চলাফেরা করেন। কিন্তু রাস্তা খারাপ হওয়ার কারণে সাধারণ মানুষদের বিভিন্ন সময়ে ভোগান্তির শিকার হতে হয় এক কথায় তাদের দুর্ভোগের শেষ ছিলো না। দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার এ বেহাল দশা থাকা সত্ত্বেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা কোন উদ্যোগ নেয়নি রাস্তা সংস্কারের। অবশেষে অত্র এলাকার যুবলীগ নেতা সমাজসেবক অসহায় মানুষের দরদী বন্ধু দাকোপের ভবিষ্যৎ কর্ণধর যুবলীগ নেতা জাহিদুর রহমান মিল্টন তিনিই শেষ পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছেন। জানা যায় ইজিবাইক চালক সমবায় সমিতি লিঃ এর সহায়তায় এবং জাহিদুর রহমান মিল্টনের অর্থায়নে এ রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে। বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় ও অনলাইন পত্রিকা এবং ফেসবুকে কয়েক দিন ধরে খবর প্রকাশিত হয়। তারপর যুবনেতা জাহিদুর রহমান মিল্টন এগিয়ে আসে রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য। এলাকা বাসী তার এই মহৎ উদ্যোগ গ্রহন করার জন্য প্রাণপন দোয়া করেন এই যুবলীগ নেতার জন্য। এলাকার শরিফুল ইসলাম বলেন, এই ইউনিয়নের প্রধান সড়ক এটি, কিন্তু দীর্ঘদিন রাস্তাটির কিছু অংশ খারাপ থাকায় আমাদের বিভিন্ন সময়ে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এলাকার কথা বিবেচনা করেই মিল্টন ভাই এ রাস্তা সংস্কার করছেন। তাই আমি দোয়া করি সে অনেক বড় নেতা হোক। তবে জনপ্রতিনিধিদের রাস্তাটি সংস্কার  করা উচিত ছিল বলে তিনি জানান। জাহিদুর রহমান মিল্টন বলেন, এলাকার মানুষের যাতায়াতে সমস্যা হচ্ছে। এ কারণেই সকলে মিলেই আমরা উদ্যোগ নিয়ে এ রাস্তার কাজ করছি। এলাকার ছেলে হিসেবে ভবিষ্যতেও এলাকার মানুষের পাশে থাকতে চাই। সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন মানুষের সেবা করে যেতে পারি।
১ নং পানখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাব্বির আহমেদ বলেন, কাজ শুরুর সময় আমি ছিলাম। রাস্তাটি বারবার ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু ভেঙে যাওয়ার কারণে পুনরায় মেরামত করা হচ্ছে। মিল্টন ভাই কাজের সময় উপস্থিত ছিলেন। মিল্টন ভাইয়ের আর্থিক সহায়তার ব্যাপারে তিনি অবগত নন বলে জানান।