“খুলনার দাকোপে দশ লক্ষ টাকায় নিয়োগ বাণিজ্য চাকরি পেলেন দুই জন, অন্যরা হতাশায়”


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৫, ২০২২, ৬:৫২ অপরাহ্ন / ৩০৩
“খুলনার দাকোপে দশ লক্ষ টাকায় নিয়োগ বাণিজ্য চাকরি পেলেন দুই জন, অন্যরা হতাশায়”
“দাকোপে দশ লক্ষ টাকায় নিয়োগ বাণিজ্য চাকরি পেলেন দুই জন, অন্যরা হতাশায়”
মোঃ শামীম হোসেন- খুলনা –
খুলনার দাকোপে শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে দশ লক্ষ টাকার বিনিময়ে চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী নিয়োগ হয়েছে এই মর্মে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ সূত্রে সরেজমিনে দেখা যায় সঠিক নিয়মে বিদ্যালয় চলে না। নিয়মিত জাতীয় সংগীত হয় না। ছাত্রী সংখ্যা ও নগন্য। আর্থিক লেনদেন সম্পর্কে মোঃ সোহেল হোসেন শিক্ষা কর্মকর্তা, দাকোপ জানেন কি না মর্মে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক চিত্ত রঞ্জন রায় কিছু সময় নিরব থেকে রাগান্বিত সুরে বলেন, আমি অত প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবো না। আর জানিনা আমি। সভাপতি পরীক্ষিত রায় বলেন, ১০ লক্ষ টাকা নিয়েছে বিদ্যালয়ের উন্নতির জন্য। আর্থিক লেনদেন বিধিসম্মত কি না জানতে চাইলে বলেন, বিদ্যালয়ের কাজে লাগলে বিধিসম্মত আর ব্যক্তিগত কাজে লাগলে বিধিবহির্ভূত। তবে টাকাগুলো প্রধান শিক্ষক, টি, আর ৩ সদস্য ও দাতা সদস্য অশোক মন্ডল এবং নরেন মন্ডলের কাছে আছে। সচেতন মহল জানায়, হেডস্যার ও কমিটির কয়েকজন স্কুলটা লুটেপুটে খাচ্ছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ সোহেল হোসেন মুঠোফোনে বলেন,  আমি এ বিষয়ে কিছু জানিনা। শিক্ষিত সমাজ অনতিবিলম্বে এর প্রতিকার চান, তবেই শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড হবে।
“মোংলায় ৩ হাজার কুকুরকে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু”
মোঃ শামীম হোসেন – খুলনা –
জলাতঙ্ক নির্মূলে মোংলায় কুকুর-কুকুরীকে ইনএক্টিভেটেড র্যাবিস ভাইরাস ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হয়েছে। রবিবার সকাল থেকে পৌর শহর ও উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ঘুরে ঘুরে কুকুর ধরে এ ভ্যাসকিন পুশ করছেন অভিজ্ঞরা। পৌরসভায় তিনটি ও ৬টি ইউনিয়নে ১৮টিম কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ করছেন। প্রথমে অভিজ্ঞ ডগ ক্যাচাররা কুকুর ধরছেন তারপর ভ্যাকসিনেটাররা ভ্যাকসিন পুশ করছেন। একই সাথে ভ্যাকসিন পুশকৃত কুকুরের শরীরে লাল রং দিয়ে চিহ্নও দিয়ে দিচ্ছেন তারা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) সুব্রত মন্ডল জানান, ১৩ নভেম্বর থেকে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত ৫দিন ধরে চলবে কুকুরের এ ভ্যাকসিন প্রদাণ কার্যক্রম। এজন্য পাবনা থেকে আনা হয়েছে ৪৬ জন অভিজ্ঞত ডগ ক্যাচার, যারা কুকুর ধরে দেয়ার কাজ করছেন। তারপর স্থানীয় ২৩ জন ভ্যাকসিনেটর কুকুরের শরীরে এ ভ্যাকসিন পুশ করছেন। কুকুরের শরীরে পুশকৃত এ ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা থাকবে পরবর্তী ১৮ থেকে ২৪ মাস পর্যন্ত। তিনি আরো বলেন, কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়ার এ কার্যক্রম সর্বশেষ হয়েছিল ২০১৯ সালে। তারপর করোনার কারণে তা বন্ধ ছিল। তাই এখন আবার শুরু করা হয়েছে। আগামী এক বছর পর আবারো এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। তিনি বলেন, তিন হাজার কুকুরকে এ ভ্যাকসিন প্রদাণের টার্গেট নিয়ে কাজ শুরু করা হয়েছে। তারপরও আমাদের কাছে ৩১০০ ভ্যাকসিন মজুদ রয়েছে।
“খুলনার দাকোপের বানিশান্তায় শবরি রায় আদালতে মামলা করায় তার পরিবার নিরাপদহীনতায় ভুগছে”
মোঃ শামীম হোসেন- খুলনা –
খুলনার দাকোপের বানিশান্তা ৪নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশের কন্যা শবরী রায় (২১) খুলনা বয়রা মহিলা কলেজের রসায়ন বিভাগের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্রী সরবরী রায় বাদী হয়ে গত ৮/৯/২২ ৭জনের বিরুদ্ধে খুলনা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজেসট্রেট এর আমলী আদালত “গ” অঞ্চলে একটি মামলা দায়ের করেছে যার সিআর-নং ১৭৬ ধারা ৩২৩/৩২৪/৩৫৪/৩৭৯/৫০৬ দণ্ডবিধি নালিশী সুত্রে জানাযায় একই গ্রামের উত্তম মন্ডল পিতা সুজিত মন্ডল, গৌতম গাইন পিতা কৃষ্ণপদ গাইন, সাগর গাইন পিতা ঠাকুর গাইন সহ আরো ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। শবরীর পড়াশোনার খরচ পরিরার থেকে বহন করতে সম্ভব না হওয়ায় টিউশনি করিয়া নিজের খরচ জোগায়, টিউশনি করিয়া রাত্রে ফেরার পথে আসামীগন শবরীকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব সহ উত্তপ্ত করে।এরই সুত্রধরে শবরীর পরিবারকে সঙ্ঘবদ্ধ আসামিগন প্রতিনিয়ত প্রাননাশের হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে বলে অসহায় পরিবারটি জানায়। বাদী শবরী সহ তার পরিবার বর্তমানে প্রতিটি মুহূর্ত নিরাপদ হীনতায় ভুগছে। তাই  প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে ভুক্তভোগী পরিবার।