“খুলনার দাকোপের লাউডোব ফেরীঘাটে নতুন ফেরী সংযোজন সংসদ সদস্য এ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এমপির একান্ত প্রচেষ্টায়”


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২০, ২০২২, ৭:১৭ অপরাহ্ন / ৩৫০
“খুলনার দাকোপের লাউডোব ফেরীঘাটে নতুন ফেরী সংযোজন সংসদ সদস্য এ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এমপির একান্ত প্রচেষ্টায়”
“খুলনার দাকোপের লাউডোব ফেরীঘাটে নতুন ফেরী সংযোজন সংসদ সদস্য এ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এমপির একান্ত প্রচেষ্টায়”
মোঃ শামীম হোসেন- খুলনা
খুলনার দাকোপে দৃশ্যমান লাউডোব ফেরিঘাট স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে এলাকাবাসীর। অবশেষে দাকোপের বঞ্চিত অবহেলিত দাকোপ উপজেলার লাউডোব ও বানীশান্তা ইউনিয়নের সংযোগ স্থলে লাউডোব ফেরীঘাটে ফেরীর দেখা মিলেছে। পাঁচটি ইউনিয়নের অর্থনৈতিক উন্নয়নে মিলবে এবার পরিবর্তন। দাকোপের ৩৩ নং পোল্ডারে অবস্থিত বাজুয়া, লাউডোব, বানিশান্তা, কৈলাজগঞ্জ দাকোপ ইউনিয়ন। এই পাঁচটি ইউনিয়নের মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল একটা ফেরিঘাট। আর সেই স্বপ্ন আজ বাস্তবে পূরণ হতে চলেছে দাকোপের কৃতি সন্তান লাউডোবের মাটিতে জন্ম গ্রহন করা নেত্রী গন- মানুষের নেতা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি এ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকারের প্রচেষ্টায়। লাউডোব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ যুবরাজ বলেন পদ্মাসেতু দক্ষিণ এলাকার মানুষের  স্বপ্ন ছিল, কিন্তু আমাদের এই পশুর নদীতে একটা ফেরি হবে তাও আবার আমাদেরই লাউডোব ঘাটে এটা কোনদিন কল্পনাও করিনি, আমার জীবদ্দশায় কর্দমাক্ত পায়ের স্বৃতি নিয়ে বৈদ্যতিক আলোয় পিচের রাস্তা বেয়ে প্রিয় মাতৃভূমি চষে বেড়াবো একথা স্বপ্নেও ভাবিনি। যা আজ বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে চলেছেন। তাই  শ্রদ্ধা ভরে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও লাউডোবের মাটিতে জন্ম গ্রহণ করে তিল তিল করে বেড়ে উঠে আজ দাকোপকে সাজানোর স্বপ্ন নিয়ে বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে যিনি দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন সেই সংসদ সদস্য আমাদের প্রানপ্রিয় দিদি এ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এমপিকে। যার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আজ এই অসাধ্য সাধন হতে চলেছে। মহান সৃষ্টিকর্তা তার মঙ্গল করুক। লাউডোব ফেরিঘাটে নতুন ফেরি দেখে এলাকাবাসী এসকল কথা আবেগ ভরে প্রকাশ করেন।