কুষ্টিয়ায় তিন দিনব্যাপী শুরু হচ্ছে মরমী সাধক বাউল সম্রাট লালন শাহের ১৩২তম তিরোধান দিবস।


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৫, ২০২২, ৪:২০ অপরাহ্ন / ৩১৮
কুষ্টিয়ায় তিন দিনব্যাপী শুরু হচ্ছে মরমী সাধক বাউল সম্রাট লালন শাহের ১৩২তম তিরোধান দিবস।

কুষ্টিয়ায় তিন দিনব্যাপী শুরু হচ্ছে মরমী সাধক বাউল সম্রাট লালন শাহের ১৩২তম তিরোধান দিবস।

মোঃ শাকিল হাসান, কুষ্টিয়া জেলা দৌলতপুর প্রতিনিধি –

কুষ্টিয়ায় তিন দিনব্যাপী শুরু হচ্ছে মরমী সাধক বাউল সম্রাট লালন শাহের ১৩২তম তিরোধান দিবস। আগামী ১৭ ই অক্টোবর থেকে সাংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় লালন একাডেমির আয়োজনে দিবসটি উদযাপন করা হবে।১৮৯০ সালের এই দিনে কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ার আখড়া বাড়িতে বাউল সম্রাট লালন শাহ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

সম্রাট ফকির লালন শাহের তিরোধান দিবসে নিরাপত্তায় যৌথভাবে কাজ করবেন পুলিশ এবং র‍্যাব-১২ কুষ্টিয়া। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লালন একাডেমির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বর্তমান এডহক কমিটির জ্যৈষ্ঠ সদস্য তাইজাল আলী খান। তাইজাল আলী খান বলেন, “লালন শাহের তিরোধান দিবসে এবার আলোচনা সভা ও লালন মেলা অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে মাজার প্রাঙ্গণ পরিষ্কার করে বর্ণিল পরিবেশ তৈরি করেছে একাডেমি কর্তৃপক্ষ। আবহাওয়া ভালো থাকলে আগামী সপ্তাহ থেকে ভক্ত-অনুসারীরা লালন আখড়ায় আসতে শুরু করবে।”

লালন একাডেমির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সেলিম হক বলেন, “লালন শাহের তিরোধান দিবসে তার সাধন-ভজনের তীর্থস্থান ছেঁউড়িয়ার আখড়াবাড়ি এবার পরিণত হবে উৎসবের আমেজে। দেশ-বিদেশ থেকে লালনভক্ত, বাউল অনুসারী ও সুধীজনসহ অসংখ্য মানুষের আগমন ঘটবে।” জেলা প্রশাসক সাইদুল ইসলাম বলেন, “লালন তিরোধান দিবস ও গ্রামীণ মেলাকে কেন্দ্র করে মাজার প্রাঙ্গণ ও তার আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হচ্ছে। পুরো মাজার এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। এছাড়া জেলা পুলিশ, র‍্যাব ও গোয়েন্দা পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। পাশাপাশি উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেখানে দায়িত্ব পালন করবেন।”