“কিশোরগঞ্জে আখ ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে মারডাং ও বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি থানায় অভিযোগ “


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২২, ২০২২, ৩:৫১ অপরাহ্ন / ৩২৪
“কিশোরগঞ্জে আখ ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে মারডাং ও বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি থানায় অভিযোগ “

“কিশোরগঞ্জে আখ ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে মারডাং ও বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি থানায় অভিযোগ “

মামুন- অর-রশিদ শামীম, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারীঃ

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার উত্তর বড়ভিটা সরকার পাড়ার বাসিন্দা মানিকুজ্জামান মানিক। মানিক প্রয়োজনীয় কাজে বিন্যাকুড়ি বাজারে গেলে বিবাদী- জাহের আলীর পুত্র নাসির উদ্দীন (৩৫) সাবেদ আলীর পুত্র বাহাদুর (৩৩) এসমতয়ারা বেগম(৩০) পারুল বেগম (৩২) রাশেদুল ইসলাম নাড্ডা (৩৩) এরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গরু দিয়ে মানিকের লাগানো আখ ক্ষেত খাওয়ায় ও ক্ষেত নষ্ট করতে থাকলে মানিকের স্ত্রী ফরিদা বেগম বাধা প্রদান করলে বিবাদীগন অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করে। নাসির দৌড়ে এসে ফরিদার পড়নের শাড়ী ব্লাউজ ছিরে বিবস্ত্র করে এলোপাতাড়ি মারডাং করে মাটিতে ফেলে দিলে। ফরিদার চিৎকারে তার ছেলে ফারুক হোসেন (২২) বাড়ী থেকে দৌড়ে আসে। তখন অন্যান্য বিবাদীগণ ফারুককে ও মারডাং শুরু করে অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। জানা যায়, তাদের চিৎকারে প্রতিবেশী গুলশানয়ারা বেগম, খাদিজা বেগম, আছিয়া বেগম আর ও অনেকে দৌড়াইয়া আসিলে বিবাদীগণ জানে মারিতে না পারিয়া হুমকি প্রদান করেন যে, বেশি বাড়াবাড়ি করলে শক্ত মারপিট করে খুন করে লাশ গুম করবে। অন্যথায় মিথ্যা মামলা  দিয়ে জেল হাজত খাটাবেন বলিয়া ঘটনা স্থল ত্যাগ করেন। মানিক বাড়িতে এসে ঘটনার বিষয় শুনে গ্রাম্য ডাক্তার দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা করান ও পরিবারের সকলের সাথে আলোচনা করে কিশোরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে অভিযোগের আই ও এএসআই মকবুল হোসেন জানান, ঘটনাস্থলে সরেজমিনে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
#অভিযোগের কপি সংযুক্ত
মোঃ মামুন-অর রশিদ শামীম
কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী
০১৭১৭৬৭০৭১৫
তারিখঃ ২০/১০/২২ ইং