ইংরেজী শুভ নববর্ষে নগরবাসীর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সিটি মেয়র খুলনা।


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ১, ২০২৩, ৪:৪১ অপরাহ্ন / ৪৮৫
ইংরেজী শুভ নববর্ষে নগরবাসীর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সিটি মেয়র খুলনা।

ইংরেজী শুভ নববর্ষে নগরবাসীর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সিটি মেয়র খুলনা।

মোঃ মিজানুর রহমান সটাফ রিপোর্টার খুলনা –

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ইংরেজী শুভ নববর্ষে নগরবাসীর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) শুভেচ্ছা বাণীতে সিটি মেয়র বিগত বছরের দুঃখ-বেদনা ভুলে সকলকে নতুনভাবে জীবন শুরু করার আহবান জানান। অতীতের সঞ্চিত অভিজ্ঞতা নতুন বছরের পথ চলতে সকলকে উজ্জীবিত করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সিটি মেয়র অতীতের দুঃখ-কেশ মুছে ফেলে সমন্বিত প্রয়াসের মাধ্যমে শান্তিময় সমাজ গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন এবং ইংরেজী শুভ নববর্ষে নগরবাসীর সুখ-সমৃদ্ধি ও শান্তিময় জীবন কামনা করেন।

২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ : শ্রম প্রতিমন্ত্রী।

মোঃ মিজানুর রহমান সটাফ রিপোর্টার খুলনা –

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। তিনি বলেন, শ্রমজীবী মানুষের পাশে থেকে আজ ৫০ বছর বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ানের আদর্শ এবং স্বপ্নের বাস্তবায়ন করছেন। জীবনের বাকী দিনগুলো শ্রমজীবী অসহায় মেহনতি মানুষের কল্যাণে কাটিয়ে দিতে চান।
শুক্রবার বিকেলে খুলনার দৌলতপুর বেবীস্ট্যান্ডে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা শহিদ অধ্যাপক আবু সুফিয়ান বীর প্রতীক-এর ৫০তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, অধ্যাপক আবু সুফিয়ান বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হৃদয়ে ধারণ করে শ্রমজীবী মানুষের জন্য জীবন দিয়ে গেছেন। দেশের মানুষের জন্য জাতির পিতার ত্যাগ যেমন বৃথা যায়নি, তেমনি শ্রমজীবী মানুষের জন্য শ্রমিক নেতা আবু সুফিয়ানের ত্যাগ বৃথা যায়নি। স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা অধ্যাপক আবু সুফিয়ান জাতির পিতার নির্দেশে খুলনায় এসে শিক্ষকতা এবং এই শিল্পাঞ্চলের শ্রমজীবী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আত্মনিয়োগ করেন। শ্রমজীবী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ৪২টি ট্রেড ইউনিয়ন গঠন করেন। তিনি বলেন, আজকের শ্রম প্রতিমন্ত্রী শহিদ আবু সুফিয়ান এর পতœী আবু সুফিয়ানের আদর্শ হৃদয়ে ধারণ করে শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের কল্যাণে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।  স্মরণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে খুলনা মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডি এ বাবুল রানা, সহ-সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম, নূর ইসলাম বন্দ, বেগ লিয়াকত আলী, শ্যামল সিংহ রায়, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ ফারুক আহমেদ, দৌলতপুর থানা আ’লীগের সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী, প্যানেল মেয়র মোঃ আমিনুল ইসলাম মুন্না, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলী, মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি মোঃ মোতালেব মিয়া প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
পরে প্রতিমন্ত্রী এবং মেয়র দৌলতপুর বেবীট্যাক্সী সিএনজি চালিত অটোরিক্সা থ্রি-হুইলার ড্রাইভার্স ইউনিয়নের উদ্যোগে ইউনিয়নের মৃত ১৫ সদস্যদের পরিবারের সদস্যদের হাতে ৯৫ হাজার টাকার অনুদানের চেক তুলে দেন।
পুলিশ কে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করবেন- পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হক পিপিএম।
মেহেদি হাসান নয়ন, বাগেরহাট –
সুন্দরবনের বনজীবিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করন ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা করেছেন বাগেরহাটের পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হক পিপিএম। শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ১১ টায় দিগরাজ সুপার মার্কেট সংলগ্ন মাঠে মোংলা থানা পুলিশ এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। সভায় মোংলা ও রামপাল উপজেলার জেলে ও আত্মসমর্পণকৃত বনদস্যু, মৎস্য ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, ২০১৮ সালের পর থেকে সুন্দরবন দস্যুমুক্ত ছিল। কিন্তু বর্তমানে ছোট্ট একটি নব্য বাহিনী নেমে জেলেদের উপর হামলা করছে। এ খবরের সাথে সাথে পুলিশের অভিযানে ওই দস্যু বাহীনি তিনজনকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিরাও পুলিশের জালের মধ্যে রয়েছে। এ অবস্থায় তিনি দস্যুদের আত্মসমর্পণের আহবান জানান। অন্যথায় জেলেদের সহযোগীতায় অচিরেই তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। পুলিশ কে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করুন।
মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বিভিন্ন বিষয় বক্তব্য রাখেন, মোংলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপংকর দাশ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আসিফ ইকবাল, মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আঃ রহমান, বুড়িরডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান উদয় শংকর বিশ্বাস প্রমুখ।
উপস্থিত বনজীবিরা এসময় বনদস্যু দমনের পাশাপাশি নৌ-পুলিশ ও বন বিভাগের বিভিন্ন হয়রানি বন্ধের দাবী জানান। পরে পুলিশ সুপার দুস্থ জেলেদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।