পটুয়াখালীতে গণপূর্তের নির্বাহী জানেনা তাদের জায়গায় কেবা কারা মাছ চাষ করছেন।


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ৩০, ২০২৩, ৪:৪১ অপরাহ্ন / ১৬৫
পটুয়াখালীতে গণপূর্তের নির্বাহী জানেনা তাদের জায়গায় কেবা কারা মাছ চাষ করছেন।

মোঃ যুবরাজ মৃধা পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ-

পটুয়াখালী পৌর শহরের সবচেয়ে সৌন্দর্য বর্ধন এলাকা ঝাউতলা যেখানে সকল শ্রেণির কর্মকর্তা সহ সকল পেশাজীবী ও সাধারন মানুষের চলাচল রয়েছে অথচ প্রকাশ্যে সেখানে মাছ চাষ করা হচ্ছে তাও সরকারি জমির উপর। জানাগেছে ঐ জমির মালিকানা দপ্তর গণপূর্ত। এবিষয়ে জানতে চাইলে গণপূর্ত নির্বাহী প্রকোশৌলী হারুন আর রশিদ বলেন তিনি জানেননা কেবা কারা এই মাছ চাষ করছেন। তবে তিনি শিওর বলেন দপ্তর কোন রকম ইজারা দেননি কাউকে। তাহলে প্রশ্নের উত্তর খুজতে সরেজমিনে গিয়ে জানা গেলো বর্তমান একজন ভালো মানের ঠিকাদার এই মাছ চাষ করছেন। এবিষয়ে বাপ্পি নামের একজন ঠিকাদারের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, তার ব্যাবসা ঠিকাদারি কখনওই মাছ চাষের মধ্যে পরে না। তবে তার সাইড দেখাশোনা করে এমন একজন আছে যে মাছ চাষ করছেন তবে তার নাম বলেননি। এছাড়াও তিনি বলেন, বিগত দিনে ওখানে কচুরিপানায় ভর্তি ছিলো যেটা পরিষ্কার করতে ২ থেকে আড়াই লাখ টাকা খরচ করেন। এরপর ধান চাষ করা হলে লাভজনক না হওয়ায় জায়গা খালি পরে থাকলে কেউ ওখানে মাছ চাষ করছেন। এর সামনেই জেলার প্রধান জেলা প্রশাসকের বাসভবন থাকায় জায়গাটা পরিষ্কার রাখা হয়েছে। অথচ যারা মাছ চাষ করছেন তারা ড্রেনে পানি নিষ্কাশনের জন্য পৌরসভা কর্তৃক ড্রেনের মুখগুলো বন্ধ করে রেখেছেন যাতে ঐ জমির পানি বের হতে না পারে এমন দৃশ্য চোখে ধরা পড়েছে।

এবিষয়ে গণপূর্তের নির্বাহী প্রকোশৌলী হারুন আর রশিদ বলেন, আমরা জানিনা সেখানে কারা মাছ চাষ করছেন। তবে বিষয়টি খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হবে।